শরীরের নানা অঙ্গে ফ্যাট জমছে কি না বুঝবেন যে লক্ষণে

Written by News Desk

Published on:

ওজন বেড়ে যাওয়ার সমস্যায় অনেকেই ভুগছেন। অনেকেরই ভুল ধারণা আছে, ফ্যাট বোধ হয় শুধু পেটেই জমে। জানলে অবাক হবেন, শরীরের ভেতরে নানা অঙ্গেও জমতে পারে ফ্যাট। এই মেদ দেখা যায় না চোখে। কারণ ত্বকের নিচে এটি জমে না।

আমাদের পেট, কোমর ও শরীরের নানা অঙ্গে ত্বকের নিচে মেদ জমলে দেখা যায়। কিন্তু সে তো বাইরের দিককার ফ্যাট।

এর নাম ভিসেরাল ফ্যাট বা অভ্যন্তরীণ ফ্যাট বা শরীরের লুকোনো মেদ। আমাদের শরীরের ভেতরেও বেশ কিছু অঙ্গ আছে। সেই অঙ্গগুলোতে জমতে থাকে এই ফ্যাট।

এই ফ্যাট সাধারণ দৃশ্যমান ফ্যাটের থেকে ক্ষতিকারক। বিশেষজ্ঞদের মতে, এই ফ্যাট আরও বড় বিপদ ডেকে আনতে পারে।

ভিসেরাল ফ্যাট কেন বেশি ক্ষতিকর?

প্রথম কারণ এই ফ্যাট লুকোনো ফ্যাট। ফলে কখন বিপদসীমা পেরিয়ে যাচ্ছে, তা বুঝে ওঠা যায় না। অনেক সময় বোঝার আগে বিপদ ঘটে যায়।

দ্বিতীয়ত, এই ফ্যাট বিভিন্ন লিভার, হার্ট, কিডনির মতো জরুরি অঙ্গগুলোর চারপাশে জমতে থাকে। যা অঙ্গগুলোর কার্যক্ষমতা কমিয়ে দিতে থাকে। বাইরে থেকে দেখা যায় না বলে এই বিপদের আঁচ আগে থেকে পাওয়া মুশকিল।

মেদ জমছে বোঝায় উপায় কী?

মেদান্তের জিআই বেরিয়াট্রিক সার্জারির চিকিৎসক বিকাশ সিংহল আইএএনএস সংবাদমাধ্যমকে জানান কিছু লক্ষণের কথা।

মূলত ট্রাঙ্কাল বডি ফ্যাট বা সোজা বাংলায় ভুঁড়ি এই ধরনের ফ্যাট জমার লক্ষণ। ভুঁড়ি হতে দেখলেই সাবধান হওয়া জরুরি।

কোমর ঘিরে যেখানে বেল্ট পরা হয়, তাকে ওয়েস্টলাইন বলা হয়। সেই ওয়েস্টলাইনের উপর মেদ জমতে শুরু করলেই তা ভিসেরাল ফ্যাটের লক্ষণ।

কী ক্ষতি হতে পারে এই ফ্যাট?

সাধারণ ফ্যাটের থেকে ভিসেরাল ফ্যাট বেশি ক্ষতিকর। কারণ এই ধরনের ফ্যাট টাইপ ২ ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ ও কোলেস্টেরলের কারণ হয়ে দাঁড়ায়।

ফ্যাট শরীরের ভিতরকার যে যে অঙ্গে জমে, সেই অঙ্গগুলোর কার্যক্ষমতা কমিয়ে দেয়। অন্যদিকে অঙ্গগুলোকে বিকলও করে দিতে পারে।

ওজন বাড়লে মানসিক স্বাস্থ্যের উপরেও প্রভাব পড়ে। স্ট্রেস হরমোনের ক্ষরণ বেড়ে যায় এই সময়। যা পরোক্ষভাবে মনের উপর চাপ তৈরি করে।

Related News