গরমে শরীর ঠান্ডা রাখতে ভাত নাকি রুটি খাবেন?

Written by News Desk

Published on:

গরমে শরীর সুস্থ রাখতে হলে এমন খাবার খেতে হবে যা ঠান্ডা রাখতে পারে। বিভিন্ন ধরনের ফল-সবজি ও পানীয় আছে যা শরীর ঠান্ডা রাখতে সাহায্য করে। তবে ভাত-নাকি রুটি, গরমে কোনটি বেশি উপকারী?

অনেকেরই ধারণা, গরমে ভাত খাওয়া সবচেয়ে স্বস্তিকর। আবার কারও কারও মতে, রুটিই স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। আসলে স্বাস্থ্যগুণের দিক থেকে একে অপরকে পাল্লা দেয় ভাত-রুটি। ভাতে আছে ভিটামিন বি, ম্যাঙ্গানিজ ও আয়রনের মতো উপাদান।

ভাতে আছে ম্যাগনেশিয়ামের মতো উপাদানও। যা পেশির কার্যক্ষমতা বাড়ায়। পেশি সচল রাখে। কার্বোহাইড্রেট থাকায় ভাত পেটের যত্ন নেয়।

অন্যদিকে রুটিতেও আছে ফাইবার। যা ডায়াবেটিস, কোলেস্টেরলের মতো রোগের সঙ্গে লড়াই করতে সাহায্য করে। তবে শরীর ঠান্ডা রাখতে কোনটি ভালো?

এ বিষয়ে ভারতের পুষ্টিবিদ অনন্যা ভৌমিকের মতে, ভাত খেলে শরীর ঠান্ডা থাকবে আর রুটি খেলে বেশি গরম লাগবে, এই ধারণা একেবারেই সঠিক নয়।

খাওয়াদাওয়া একান্তই ব্যক্তিগত ইচ্ছার উপর নির্ভর করে। ভাতে পানির অংশের পরিমাণ বেশি। তাই গরমে ভাত খাওয়ার পর স্বাভাবিকভাবে আলাদা তৃপ্তি হয়।

তবে তার মানে এই নয় যে রুটি খাওয়া যাবে না। রুটি খেয়ে কেউ যদি হজম করতে পারেন, তাহলে কোনো সমস্যা নেই। আবার কারও যদি মনে তিনবেলা ভাত খাবেন, সেটাও খেতে পারেন।

তবে হজমের গোলমাল থাকলে রুটি না খাওয়াই ভালো। শারীরিক কোনো সমস্যা না থাকলে, ভাত হোক কিংবা রুটি সবকিছুই পরিমাণমতো খেয়ে সুস্থ থাকা যায়।

তাই ভাত নাকি রুটি, এই বিতর্কের কোনো সঠিক জবাব পাওয়া কঠিন। এই পুষ্টিবিদের মতে, ভাতের মধ্যে শীতলভাব বেশি এ কথা অস্বীকার করা যায় না।

তবে রুটি খেয়ে যদি হজম করা যায়, তাতেও কোনো সমস্যা নেই। তবে ভাত বা রুটি যা ই খান, গরমে পরিমাণ কমিয়ে খাওয়াই ভালো। তাহলে শরীর ঝরঝরে থাকবে।

Related News