সর্দি ও গলা ব্যথা ওমিক্রনের লক্ষণ নয় তো? কি বলছে গবেষণা

Written by TT Desk

Published on:

করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ‘ওমিক্রন’ দ্রুতগতিতে ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বে। করোনাভাইরাসের মধ্যে ঘটেছে অনেকগুলো মিউটেশন। অর্থাৎ ভাইরাস নিজেকে প্রতিনিয়ত বদলাচ্ছে। আর এই বদল হয়েছে ভাইরাসের স্পাইক প্রোটিনে।

আর এই বদলে যাওয়া ভাইরাসের নতুন ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট আরও বেশি সংক্রামক বলেই ভাবাচ্ছে বিশেষজ্ঞদের। এরই মধ্যে ওমিক্রনের উপসর্গ নিয়েও গবেষণা চালাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

সম্প্রতি যুক্তরাজ্যের একটি সমীক্ষা জানাচ্ছে, ওমিক্রনের উপসর্গ হিসেবে সর্দি, গলাব্যথা, মাথাব্যথা ও ক্লান্তি হতে পারে। ‘Zoe Covid’ স্টাডি অ্যাপটির মাধ্যমে কয়েক হাজার মানুষকে ওমিক্রনের উপসর্গগুলো লগ করতে বলেছে গবেষণকরা।

৩-১০ ডিসেম্বরের মধ্যে রিপোর্ট করা ভাইরাসটির সবচেয়ে সাধারণ লক্ষণগুলো ছিল নাক দিয়ে জল পড়া, মাথাব্যথা, ক্লান্তি, হাঁচি ও গলা ব্যথা, জানিয়েছে ডেইলি মেইল।

সাধারণ কোভিড লক্ষণগুলোর মধ্যে আছে একটানা কাশি, উচ্চ তাপমাত্রা বা স্বাদ ও গন্ধে পরিবর্তন। অন্যদিকে ওমিক্রনে সর্দি ও গলা ব্যথারে মতো উপসর্গ হচ্ছে বলে জানা গেছে।

এপিডেমিওলজিস্ট প্রফেসর টিম স্পেক্টর, ‘জো সিম্পটম ট্র্যাকিং স্টাডি’র প্রধান বিজ্ঞানী ব্রিটিশদেরকে ক্রিসমাসে সতর্ক থাকতে বলেছেন। বন্ধুবান্ধব ও আত্মীয়দের সঙ্গে দেখা করার আগে ওমিক্রনের বিষয়টি মাথায় রাখতে হবে।

তিনি বলেন, ‘আশা করি মানুষ এখন ঠান্ডার মতো লক্ষণগুলো চিনতে পেরেছে, যা ওমিক্রনের প্রধান বৈশিষ্ট্য বলে মনে হচ্ছে। ওমিক্রনের উপসর্গগুলো প্রধানত সর্দি, মাথাব্যথা, গলা ব্যথা ও হাঁচি। তাই এসবে ভুগলে ঘর থেকে বের হবেন না।’

অধ্যাপক স্পেক্টর বলেছেন ‘ক্লাসিক’ কোভিড লক্ষণ যেমন- জ্বর, কাশি বা গন্ধ হ্রাস এখন কেবল সংখ্যালঘু ক্ষেত্রে উপস্থিত আছে। যা হতে পারে করোনা ভ্যাকসিনের আশির্বাদ।

ইউকে হেলথ সিকিউরিটি অ্যাজেন্সি (ইউকেএইচএসএ) থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, কোভিড পজিটিভ রোগীদের শরীরে বর্তমানে মৃদু লক্ষণও দেখা যাচ্ছে না।

অর্থাৎ করোনা পজেটিভ হয়েও তারা সুস্থ আছে। তাই করোনা ভ্যাকসিন আবশ্যক। যা আপনাকে সুরক্ষিত রাখবে।

Related News