নখ ভালো রাখতে মধুর ব্যবহারগুলো জানা আছে কি আপনার?

Written by News Desk

Published on:

ত্বক ও চুলের যত্নে আমরা যেভাবে সচেতন নখের যত্নে ততটা নই। অবশ্য অনেকে আবার একটু বেশিই সচেতন, যে কারণে পার্লারে গিয়ে একগাদা টাকা খরচ করে মেনিকিওর করিয়ে থাকেন। পরিচ্ছন্ন ও সুন্দর নখ আপনার ব্যক্তিত্ব ও রুচির প্রকাশ করে। কিন্তু সেজন্য যদি অতিরিক্ত খরচ করতে হয়, তবে তা কোনো কাজের কথা নয়।

আপনি যদি কিছু উপায় শিখে নেন তাহলে ঘরে বসেই খুব সহজে নখের যত্ন নিতে পারবেন। নখ ভালো ও সুন্দর রাখতে দিনের মধ্যে কিছুটা সময়ই যথেষ্ট। নখের যত্নে ঘরোয়া যেসব উপাদান কার্যকরী তার মধ্যে অন্যতম হলো মধু। মধু শুধু স্বাস্থ্যের জন্যই উপকারী নয়, এটি রূপচর্চায়ও সমান কার্যকরী। সেইসঙ্গে এটি নখ ভালো রাখতেও কাজ করে। চলুন জেনে নেওয়া যাক নখ ভালো রাখতে মধুর ব্যবহারগুলো-

নখের সমস্যা দূর করতে

অনেকের ত্বকে সমস্যা থাকে। কারও কারও নখের চারপাশের চামড়া দ্রুত শুষ্ক হয়ে যায়। যে কারণে নখে ছত্রাক বা ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণের ভয় বেড়ে যায়। এর ফলে নখ দ্রুত ভাঙে। কারও কারও ক্ষেত্রে নখ কালো হয়ে যায় বা নখে হলদেটে দাগ দেখা যায়। এসব সমস্যা অবহেলা করা যাবে না। যত্ন নিতে হবে শুরু থেকেই। এক্ষেত্রে সহায়ক হতে পারে মধুর ব্যবহার। নখের উপর নিয়মিত মধু ব্যবহার করলে এর চারপাশের চামড়া অনেকটাই কোমল হয়। ফলে সংক্রমণের ভয় কমে।

সংক্রমণের ভয় এড়াতে

কারও কারও ক্ষেত্রে হাতের নখের চারপাশের চামড়া উঠে যায়। ফলে হাতে জ্বালাপোড়া বা ব্যথা পর্যন্ত হতে পারে। এদিকে পায়ের নখের ক্ষেত্রে ধুলোবালি, কাঁদা ইত্যাদির জন্য সংক্রমণের ভয় থাকে বেশি। আপনি যদি নখে নিয়মিত মধু ব্যবহার করেন তবে এই সমস্যায় পড়তে হবে না। প্রাকৃতিক এই উপাদান আমাদের নখ ভালো রাখার ক্ষেত্রে বেশ কার্যকরী।

নখে যেভাবে মধু ব্যবহার করবেন

নখ ভালো রাখার জন্য নখের উপর সরাসরি মধু লাগাবেন না। যদিও এভাবে সরাসরি ব্যবহার করলেও তেমন কোনো ক্ষতি নেই। তবে আরও ভালো ফল পেতে চাইলে মধুর সঙ্গে সামান্য লেবুর রস মিশিয়ে নিতে পারেন। এই মিশ্রণ নখের উপর এবং এর চারপাশে ভালোভাবে মালিশ করতে হবে। এভাবে পরিচর্যা করতে হবে ১০-১৫ মিনিট ধরে। এরপর ঠান্ডা জল দিয়ে নখ ধুয়ে নিতে হবে। এভাবে নিয়মিত যত্ন নিলে দ্রুত উপকার পাবেন।

Related News