গ্রিন চায়েরও খারাপ দিক রয়েছে।আপনার এই সমস্যাগুলো আছে? তাহলে এড়িয়ে চলুন গ্রিন টি

গ্রিন টি স্বাস্থ্যকর পানীয় হিসেবে এখন বিশ্ব জুড়ে ব্যাপক জনপ্রিয়। চীনের এই হারবাল চা এশিয়া ছাড়িয়ে পশ্চিমা বিশ্বেও নাম কামিয়েছে। এই চা ওজন কমাতে দারুণ কার্যকর। এই চা সার্বিক অর্থে উপকারী।

গবেষণায় দেখা গেছে, যারা গ্রিন টি পান করেন তাদের মৃত্যুঝুঁকি ৫ শতাংশ কমে আসে। তবে অনেক বিশেষজ্ঞের মতে, এই চায়েরও খারাপ দিক রয়েছে। বিশেষ কিছু রোগ ও শারীরিক অবস্থার ক্ষেত্রে এটি ক্ষতিকর হতে পারে।

গবেষণায় বলা হয়, যারা অন্তঃসত্ত্বা অথবা গর্ভধারণের চেষ্টা করছেন তাদের গ্রিন টি পান করা উচিত নয়। এতে রয়েছে ক্যাফেইন। আর এই উপাদান খুব সহজে রক্তের মাধ্যমে ভ্রুণের রক্তপ্রবাহে মিশে যেতে পারে। ক্যাফেইন বড়দের শরীরে যত সহজে সহনীয় হয় ভ্রুণের সঙ্গে ততটা নিশ্চয়ই হবে না। তাই এ সময় গ্রিন টি এড়িয়ে চলাই ভালো। শুধু গ্রিন টি নয়, ক্যাফেইন রয়েছে এমন যেকোনো কিছু এড়িয়ে চলতে হবে। শরীরে আয়রনের ঘাটতি থাকলে গ্রিন টি না খাওয়াই উচিত বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

এমনিতেই এই পানীয় শরীরকে আয়রন গ্রহণের সক্ষমতা কমিয়ে দেয়। কাজেই এ সময় গ্রিন টি খেলে আয়রনের আরো ঘাটতি দেখা দেবে। গ্রিন টিতে থাকে ফিল্টারড ক্যাফেইন। ঘুম আসার সময় শরীরে যেসব রাসায়নিক পদার্থ নির্গত হয়, ক্যাফেইন তাতে বাধ সাধে।

কাজেই যাদের ইনসমনিয়া রয়েছে তাদের জন্য এই চা রীতিমতো হিতে বিপরীত ঘটাবে। তাই যাদের ঘুমের সমস্যা আছে তারা গ্রিন টি থেকে দূরে থাকুন। অনেক বিশেষজ্ঞ ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপের রোগীদের এই চা থেকে দূরে থাকতে বলেন। কারণ গ্রিন টি রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়। এতে ঝিমঝিম ভাব, উদ্বেগ আর অবসাদ ভাব চলে আসে।

Related Posts

© 2023 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress